Loading...

টার্কির ১২ টি রোগ এবং প্রতিকার

টার্কি পালন এখন আমাদের দেশে খুব বিরল ঘটনা নয়। অনেকে খামার করে পালন করছেন, কেউ বা শখে। প্রায় সবাই টার্কি পালন করতে গিয়ে রোগব্যাধির সম্মুখীন হন। তাই আজ জেনে নিন টার্কির ১২ টি কমন রোগ এবং তাদের প্রতিকার-

সমস্যা: টার্কির বাচ্চার কোন ধরনের রোগ হয় এবং এর জন্য কোন প্রতিষেধক টিকা দিতে হবে কি?

সমাধান: টার্কির বাচ্চার অনেক রোগ হতে পারে যেমন ম্যারেক্স, গামবুরো, রাণিক্ষেত , কলেরা ইত্যাদি। এর জন্য এক দিন বয়সের বাচ্চা থেকে শুরু করে করে বিভিন্ন বয়সের টার্কিকে টিকা প্রদান করতে হবে।

সমস্যা: টার্কির বাচ্চা হয় এবং বাচ্চা অবস্থায় বাচ্চার চোখে ফোট আকৃতি হয় চোখ বন্ধ হয়ে পরে মাড়া যায়।

সমাধান: অসুস্থ্য টার্কিকে আলাদা করে রাখতে হবে। আক্রান্ত টার্কিকে ফাউল পক্স ভেক্সিন (বোতলেরে সাথে নির্দেশিকা মোতাবেক) দিতে হবে।

সমস্যা: টার্কি (৫-৭ টি) খাবার খায় না, নাক দিয়ে পানি পরে, ঝুটিতে পক্স হয়েছে, শ্বাস কষ্ট আছে , হাল্কা চুনা পায়খানা করে।

সমাধান: ডক্সিভেট/টাইরোসেফ আধা কেজি সমপরিমান ভাতের সাথে ৫-১০ গ্রাম ঔষধ মিশিয়ে রোগাক্রান্ত টার্কিগুলোকে খাওয়াতে হবে। অথবা রেনামাইসিন টেব্লেট (২ টি) আধা কেজি সমপরিমান ভাতের সাথে গুরা করে খাওয়াতে হবে।

সমস্যা: টার্কি জিমায়, চুনা চুনা পায়খানা করে, অবশেষে মারা যায়।

সমাধান: রেনামাইসিন ১ লিটার পানির সাথে ১ গ্রাম হারে মিশিয়ে পরপর ৫ দিন খাওয়াতে হবে।

সমস্যা: টার্কি চোখে গুটি, চোখ ফুলে বন্ধ হয়ে গেছে।

সমাধান: ১. পভিসেট তুলা দিয়ে আক্রান্ত স্থানে পরিষ্কার করতে হবে সকাল ও বিকালে।

২. ডিসপ্রিন ১টি টেবলেট পানিতে গুলিয়ে সকালে ১ বেলা খাওয়াতে হবে।

সমস্যা: টার্কির রক্ত আমাশয়।

সমাধান:

১.প্রতি লিটার খাবার পানিতে দুই গ্রাম ‘ইএসবি-৩’ ৩০% ঔষধ মিশ্রিত করে পর পর তিন দিন খাওয়ানোর পর আরও দুই দিন বন্ধ রেখে তারপর আরও দুইদিন খাওয়াতে হবে এবং তারপর আরও একদিনের খাবার পানিতে প্রতি লিটার দেড় গ্রাম হারে ঔষধ মিশিয়ে খাওয়াতে হবে।

২.’সিকাল রক্ত আমাশয়’ এর বেলায় ৬০ মিলি তরল এমবাজিন ১৩.৫ লিটার বিশুদ্ধ খাবার পানিতে অথবা ৪ এম, এল তরল এমবাজিন ১ লিটার বিশুদ্ধ খাবার পানিতে মিশিয়ে পর পর তিনদিন খাওয়ানোর পর দুইদিন ঔষধ বন্ধ রেখে শুধু পানি মেশানো খাওয়াতে হবে।

৩.আন্ত্রিক রক্ত আমাশয়ের বেলায় ৩০ মিলি তরলড় এমবাজিন।

সমস্যা: টার্কির মুখ কালো ও ফ্যাকাশে হয় এবং চুন পায়খানা করে মারা যায়।

সমাধান:ররেনামাইসিন প্রতি চারটি টার্কির জন্য প্রতিদিন একটি ট্যাবলেট খাদ্য বা পানির সাথে মিশিয়ে খাওয়াতে হবে পরপর তিন দিন।

সমস্যা: ব্রয়লার টার্কির বাচ্চার ১২/১৩ দিন সময় থেকে দেখা যায় খামারে ৫ থেকে ২৫% বাচ্চা দাড়িয়ে থেকে ঝিমায়, বাড়ে না, শুকিয়ে যায়, তলপেটে পানি জমে ফুলে থাকে। অবশেষে মারা যায়। এর প্রতিকার কি?

সমাধান: জেন্টামাইসিন ০.৩ মিলি হারে টার্কির বুকের মাংসে পরপর ৫ দিন ইনজেকশন দিতে হবে।

Loading...